খেলাপি ঋণ আদায় হার ৭.৬%

rinkhalaphe

চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে মার্চ পর্যন্ত (নয় মাস) সরকারি মালিকানাধীন আট ব্যাংকের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ৪১ হাজার ৪২৩ কোটি টাকা। এ সময় খেলাপি ঋণ আদায় হয়েছে তিন হাজার ১৫২ কোটি টাকা।
জাতীয় পার্টির সাংসদ পীর ফজলুর রহমানের প্রশ্নের জবাবে মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এ তথ্য জানান।

অর্থমন্ত্রীর তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, চলতি অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে খেলাপি ঋণ আদায় হয়েছে ৭ দশমিক ৬ শতাংশ। এ সময়ে সবচেয়ে বেশি খেলাপি ঋণ সোনালী ব্যাংক লিমিটেডের, ১০ হাজার ৬২৯ কোটি টাকা। ব্যাংকটি নয় মাসে আদায় করেছে ৬৫৪ কোটি টাকা।

এ ছাড়া অন্য ব্যাংকগুলোর অবস্থা হলো:
১. জনতা ব্যাংক ছয় হাজার ৫১০ কোটি টাকা খেলাপি ঋণ থেকে আদায় করেছে ২৫৪ কোটি টাকা।
২. অগ্রণী ব্যাংক ছয় হাজার ৮৬ কোটি টাকা থেকে আদায় করেছে ৪৮৩ কোটি টাকা।
৩. রূপালী ব্যাংক চার হাজার ২৬৪ কোটি টাকা থেকে আদায় করেছে ৩২৮ কোটি টাকা
৪. বেসিক ব্যাংক সাত হাজার ৩৭৪ কোটি টাকা থেকে আদায় করেছে ১৫০ কোটি টাকা।
৫. বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড (বিডিবিএল) ৮৫৪ কোটি টাকা থেকে আদায় করেছে ১৩০ কোটি টাকা।
৬. বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক চার হাজার ৬৭৯ কোটি টাকা থেকে আদায় করেছে ৯৩০ কোটি টাকা।
৭. রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক এক হাজার পাঁচ কোটি টাকা থেকে ২২৩ কোটি টাকা নগদ আদায় করেছে।
সরকারদলীয় সংরক্ষিত আসনের সাংসদ পিনু খানের ভিন্ন এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রীর লিখিত জবাব হচ্ছে, দেশের ৫৫টি ব্যাংকে বর্তমানে ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান মিলিয়ে দুই লাখ দুই হাজার ৬২৩ জন খেলাপি রয়েছে।
সরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকের মধ্যে খেলাপি ঋণগ্রহীতার সংখ্যা সবচেয়ে বেশি অগ্রণী ব্যাংকের_আট হাজার ৬০০ জন। এ ছাড়া সোনালী ব্যাংকের খেলাপি ছয় হাজার ৯৫৪ জন, জনতা ব্যাংকের চার হাজার ৪৯৪ জন ও রূপালী ব্যাংকের এক হাজার ৫৮৪ জন। বেসরকারি ব্যাংকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি খেলাপি ব্র্যাক ব্যাংকের_ ৩৯ হাজার ৫৬২ জন। বিদেশি ব্যাংকের মধ্যে বেশি স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের ৩০ হাজার ৩৩৯ জন।

Authors
Top