ছাত্রদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে খালেদা জিয়া পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দিয়ে নির্বাচন দিতে হবে-খালেদা জিয়া

khaleda at sdol birthday 1

চাইলেও বিএনপিকে বাদ দিয়ে একাদশ জাতীয় নির্বাচন করা যাবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন খালেদা জিয়া।

মঙ্গলবার রাতে ছাত্র দলের সমাবেশে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, “আমরা নির্বাচনী দল, আমরা নির্বাচন করব। বাইরে রাখতে চাইলেই রাখা যাবে না। নির্বাচন করব আমরা।”

নির্দলীয় সরকারের অধীনে ওই নির্বাচনের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, “আপনারা (সরকার) যদি মনে করেন, আমাদের লোকজন ধরে নিয়ে যাবেন। তারপর নির্বাচন ঘোষণা করবেন, সেটা আর হবে না। ২০১৪ সালের মতো নির্বাচন আর হবে না। এই দেশে নির্বাচন হবে সকল দলের অংশগ্রহণে।

“বিএনপি সবচেয়ে বড় দল, তাকে (বিএনপি) বাদ দিয়ে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হতে পারে না। কারণ সারা পৃথিবী বুঝে গেছে যে, হাসিনার অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি, হবে না।”

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্বাধীন সরকারের অধীনে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির ভোট বর্জন করে প্রায় আড়াই দশক পর সংসদের বাইরে চলে আসে বিএনপি।

তারা এবারও নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি করলেও তাতে গা করছে না ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতারা। বরং গত নির্বাচনের আগে সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী সব দলের মতৈক্যের সরকার গঠনে বিএনপিকে অংশ নেওয়ার প্রস্তাব করা হলেও এবার আর তা হচ্ছে না বলে ক্ষমতাসীন দলের মন্ত্রী-নেতারা বলে আসছেন।

তবে খালেদা জিয়া বলছেন, বাংলাদেশের বর্তমান সরকার ‘জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার নয়’।

“ভোটে নির্বাচিত নয় বলেই তাদের অধীনে নির্বাচন হতে পারে না। আজকে সংসদ বলে কিছু নাই। হাসিনারা ক্ষমতায় থাকার জন্য সংসদ রেখে নির্বাচনের ব্যবস্থা করেছিল। ২০১৪ সালে নির্বাচনে এরা তো ভোটই পায় নাই, এরা সংসদে থাকার যোগ্য নয়। কাজেই সংসদ ভেঙে দিয়েই নির্বাচন দিতে হবে। এই সংসদ রেখে নির্বাচন হবে না।”

Authors
  
Top