ফ্যাশনে ছোট চুল

haircut
চুলের কাটে এখন একটু ছোটই পছন্দ করছেন সবাই। ছোট চুলে ফ্যাশনটা জনপ্রিয়তা পাওয়ার কারণ একে বাঁধা কিংবা খোলা রাখা দুটোই সহজ। সুন্দর একটা কাট দিয়ে সহজেই আপনার চেহারায় পরিবর্তন আনতে পারেন।
হাল ফ্যাশনের চুলের কাট সম্পর্কে বললে একবাক্যেই বলা যায় বব হেয়ার কাট। নব্বইয়ের দশকে এটি ছিল জনপ্রিয় হেয়ার কাট। ঘরে-বাইরে যে কোনো উৎসবে এ কাট খুব সহজেই মানিয়ে যায়। তবে যারা এতটা ছোট করতে চান না চুল, তাদের জন্য এ সময়কার জনপ্রিয় চুলের ফ্যাশন হচ্ছে পিক্সি কাট। যদিও এ চুলের কাটটি ষাটের দশকের। তবে আবারো ফিরে এসেছে ফ্যাশনেবল তরুণীদের মধ্যে। এ সময়ের আরো একটি হেয়ার কাট হচ্ছে শ্যাগ। ঘাড় পর্যন্ত নেমে যাওয়া চুলগুলো কাটা হয় ধাপে ধাপে। তা ছাড়া বর্তমানে কিছুটা কোঁকড়া ঢঙের চুলের কাটের ব্যবহারও দেখা যাচ্ছে। চলছে সামার কাটও, যেখানে পেছনের ছোট চুল ক্রমান্বয়ে সামনের দিকে বড় হতে থাকে।
এসব কাটের পাশাপাশি সব বয়সীর মধ্যেই জনপ্রিয়তা পেয়েছে লেয়ার কাট। শর্ট কিংবা লং দুই রকমই কাটা হয়। তরুণীদের মধ্যে ব্যাংকস কাটের ব্যবহারও বহুল। এ ছাড়া ভলিয়ম লেয়ার, ইউ কাটও চলছে। এখন চুলের নতুন রূপ দেয়ার আগে খেয়াল রাখুন কয়েকটি বিষয়থ
ক্স ছোট কিংবা মাঝারি যে রকমই রাখুন না কেন, তাতে যে কাটই দিন না কেন, তার আগে একটু ভেবে নিন চুলের সেই রূপটি আপনার ব্যক্তিত্বের সঙ্গে যায় কিনা।
ক্স আপনার চেহারার গড়নের দিকটি মাথায় রাখুন। যাদের মুখ গোলাকৃতি এবং উচ্চতা ভালো, তারা সামার কাট করতে পারেন। যাদের মুখ চাপা, তারা করতে পারেন ভলিয়ম লেয়ার অথবা শ্যাগ কাট।
ক্স যাদের চুল কোঁকড়া, তাদের স্টেপ কিংবা ভলিয়ম কাট না নেয়া ভালো। তারা চুলটা সমান দৈর্ঘ্যে ইউ বা লেয়ার করতে পারেন।
ক্স সব বয়সীর জন্যই লেয়ার কাট ও ইউ কাট মাধুর্যপূর্ণ।
ক্স তরুণীরা পেছনে লেয়ার বা স্টেপ করে সামনে ব্যাংকস রাখতে পারেন।
ক্স যাদের চুল বড়, তারা হঠাৎ করেই ছোট করবেন না। একটু মাঝারি একটা কাট দিন প্রথমে। তারপর ছোট কোনো কাটে যান।
ক্স চুলের কাট দেয়ার সময় খেয়াল রাখুন, আপনার মুখমন্ডলের সঙ্গে এটি যেন যায়।
ক্স চুল প্রথমে অল্প কাটতে বলুন। আয়নায় ভালোভাবে লক্ষ্য করুন, আপনাকে ভালো দেখালে তারপর সে কাটটির স্থায়ী রূপ দিন।
ক্স চুলের সবচেয়ে সরল সাজ হলো সমান চুলে। আপনি চাইলে পুরো চুল সমান মাপে কেটে নিতে পারেন। এতেও দেখতে মন্দ লাগার কথা নয়।
চুলের শুধু কাট দিলেই হবে না। সেই কাট করা চুল সুন্দরভাবে রাখতেও হবে। চুল কাটার সময়ই জেনে নিন এর পরিচর্যা কেমন হবে। একেক কাটের ক্ষেত্রে পরিচর্যা একেক রকম হবে। জেনে নিন তা-ও। নয়তো আপনার চুলের কাট একেবারেই বেমানান লাগবে। এরপর করুন এর পরিচর্য।
Authors
Tags
  

Related posts

Top