সিডনিতে “হোয়াইট রিবন নাইটস-২০১৭” অনুষ্ঠত

wrn (1)

হোয়াইট রিবন অষ্ট্রেলিয়া’র আয়োজনে গত ২৩শে জুলাই ১৭ রবিবার সিডনি ল্যাকান্বার একটি স্হানীয় রেষ্টুরেন্ট বটতলাতে” হোয়াইট রিবন নাইটস-২০১৭” অনুষ্ঠিত হল। অনুষ্ঠানটি উপস্হাপনা করেন অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ স্পোর্টস এন্ড কালচারাল এসোসিয়েশনর সভাপতি নাসিম সামাদ। পারিবারিক নির্যাতন বন্ধের সচেতনতা বাড়াতে অষ্ট্রেলিয়াতে আগামী ২৮শে জুলাই হোয়াইট রিবন নাইটস পালন করা হয়।। আর এই মহৎতী উপলক্ষ্যকে সামনে রেখে হোয়াইট রিবন অষ্ট্রেলিয়ার অ্যাম্বাসেডর আবুল কালাম আজাদ খোকনের “হোয়াইট রিবন নাইটস-২০১৭” এর আয়োজন। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলয়াৎ করেন সাইফুল ইসলাম শরীফ (রনি)। তারপর অষ্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত বাজানো হয়। অনুষ্ঠান আয়োজন মালায় আরো ছিল নারী নির্যাতন দূরীকরণ বিষয়ক প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী। অ্যাম্বাসেডর হোয়াইট রিবন অষ্ট্রেলিয়া সম্পর্কীত প্রশ্নের উত্তর দেন। ক্যানবেরার বাঙ্গালী কমিউনিটির রোল মডেল আইভি-মুনির দম্পতির ত্রিশ বৎসরের সংসার জীবন (ডোমেষ্টিক ভায়োলেন্স ব্যাতীত) পার করেছেন তা দর্শকদের শেয়ার করন। হোয়াইট রিবন নাইটস উপলক্ষ্য কেক কাটা হয়েছে। অনুষ্ঠানে সকল বক্তারা নারী ও শিশু নির্যাতনের কারণ, ধরণ ও প্রতিকার নিয়ে বক্তাব্য রাখেন। এ ধরণের আয়োজনে কমিউনিটির সহযোগীতাও কামনা করেন।

আয়োজনস্থলে উপস্থিত ছিলেন হোয়াইট রিবন অষ্ট্রেলিয়া দলের অ্যাম্বাসেডর আবুল আজাদ,অ্যাডভান্স ডাইভারসিটি সার্ভিসেস’র ম্যানেজার আতিফ, ক্যান্পলটাউন সিটি কাউন্সিলের কাউন্সিল মাসুদ চৌধুরী, ব্যাংকসটাউন সিটি কাউন্সিলের রির্সোস রিকভারী অফিসার ডোস্ক বোরোটা,ব্যাংকসটাউন সিটি কাউন্সিলের প্রজেক্ট অফিসার অনিল গুপ্তা,কোগরা মাসাল্লার ইমাম মইনুদ্দিন, লেবার পার্টির নেতা আবুল বাশার খান,সাংবাদিক ও অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ। আয়োজনস্থলে বাংলাদেশী সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এস,বি,এস রেডিও বাংলা বিভাগের প্রযোজক এবং জন্মভুমি টিভি’র প্রধান আবু রেজা আরেফিন, মুক্তমঞ্চের সম্পাদক আল নোমান শামিম,বিদেশবাংলা টেলিভিশনের নির্বাহী প্রযোজক রহমত উল্লাহ,যমুনা টিভির অস্ট্রেলিয়া প্রতিনিধি হাসান তারিক, স্বাধীন কন্ঠ পত্রিকার সম্পাদক আবদুল আউয়াল, নবধারা নিউজ’র সম্পাদক আবুল আজাদ ও চ্যানেল আই’র সিডনি প্রতিনিধি বাবু আসওয়াদ,সাংবাদিক মিজানুর রহমান সুমন, নবধারা নিউজ’র রিপোর্টার সানিল উসান ও ড. ফয়জুল আজীম। অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশি কমিউনিটির মধ্যে আবুল কালাম আজাদই প্রথম ‘হোয়াইট রিবন অষ্ট্রেলিয়া অ্যাম্বাসেড’র এর কৃতিত্ব অর্জন করেন। দূতিয়ালির দায়িত্ব পাওয়া আবুল কালাম আজাদ পেশায় একজন স্বাস্থ্যকর্মী, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব এবং স্বেচ্ছাসেবী। নানা ধরনের সচেতনতামূলক কাজের সঙ্গে তিনি দীর্ঘদিন ধরে জড়িত। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় পারিবারিক নির্যাতন বন্ধে বৃহৎ পরিসরে কাজ করার আগ্রহের কথা জানান আজাদ। কেক কাটা ও নৈশভোজের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানটি শেষ হয়। সবশেষে নবধারা নিউজের পরিবার ও হোয়াইট রিবন অষ্ট্রেলিয়ার অ্যাম্বাসেডর আবুল কালাম আজাদ সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানেন।

Authors
  
Top