সিরিয়ায় স্থায়ীভাবে সামরিক ঘাঁটি স্থাপন করছে রাশিয়া

assad-putin 1

সিরিয়ার বিমান ও নৌঘাঁটিগুলোতে স্থায়ীভাবে সামরিক উপস্থিতি প্রতিষ্ঠা করতে শুরু করেছে রাশিয়া। মঙ্গলবার রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী একথা জানিয়েছেন।

একইদিনে রাশিয়ার সংসদে এই বিষয়ে সিরিয়ার সঙ্গে একটি চুক্তির অনুমোদনও দেওয়া হয়েছে।

চুক্তিটি স্বাক্ষর হয়েছিল গত ১৮ জানুয়ারি। চুক্তি অনুযায়ী ভূমধ্যসাগরে অবস্থিত রাশিয়ার একমাত্র নৌ ঘাঁটি তারতুস নেভাল ফ্যাসিলিটি এবং রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ সিরিয়ার জলসীমায় প্রবেশ করতে পারবে।

গত সপ্তাহে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তারতুস নৌঘাঁটি এবং হেমাইমিম বিমান ঘাঁটিতে স্থায়ী স্থাপনা তৈরি করার অনুমেদান দেন। এরপর থেকেই রাশিয়া সেখানে স্থায়ী সামরিক উপস্থিতি গড়ে তুলতে শুরু করেছে।

তারতুস নৌঘাঁটি সাবেক সোভিয়েত আমল থেকেই সক্রিয় ছিল। তবে এতে খুব বেশি বড় আকারের যুদ্ধ জাহাজ রাখা যায় না।

চুক্তিতে রাশিয়াকে ১১টি যুদ্ধ জাহাজ তারতুস ঘাঁটিতে রাখার অনুমোদন দেওয়া হয়। এর মধ্যে পারমাণবিক বোমা বহনকারী যুদ্ধ জাহাজও থাকবে।

চুক্তিটি আপাতত ৪৯ বছরের জন্য কার্যকর থাকবে। এরপরও মেয়াদ বাড়ানো হতে পারে।

হেমাইমিম বিমান ঘাঁটিটি বিদ্রোহীদের সঙ্গে যুদ্ধের সময় সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের পক্ষে বোমা বর্ষণের জন্য ব্যবহার করে রাশিয়া। এটি এখন রাশিয়া ইচ্ছা মতো ব্যবহার করতে পারবে।

সূত্র: রয়টার্স

Authors
Top